মালয়েশিয়ায় বৈধকরণ প্রক্রিয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশনের সতর্কবার্তা

 

কূটনীতিক প্রতিবেদক / লিগ্যাল ভয়েস টোয়েন্টিফোর :

মালয়েশিয়ায় বৈধকরণ প্রক্রিয়া ঘোষণার পরপরই তৎপরতা শুরু করেছে এক শ্রেণীর অসাধু দালাল চক্র। বৈধ করে দেয়ার নামে তারা চটকদার বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা শুরু করেছে।

আর এজন্য তারা বেছে নিয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকসহ বিভিন্ন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ, ইমো। যা নজরে আসায় সতর্কবার্তা জারি করেছে মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন।

সতর্ক বার্তায় উল্লেখ করা হয়েছে, ‘বৈধকরণ প্রক্রিয়ায় কোনো ধরনের এজেন্ট বা ভেন্ডর নিয়োগ দেয়া হয়নি। এজন্য প্রবাসীদের কারো সঙ্গে আর্থিক লেনদেন না করার জন্য পরামর্শ দিচ্ছে মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন।’

শনিবার (১৫ নভেম্বর) শ্রমিকদের সচেতনতায় কুয়ালালামপুরের বাংলাদেশ হাইকমিশন তাদের নিজস্ব ফেইসবুক পেইজে সচেতনমূলক এই পোস্ট দেয়।

হাইকমিশনের পক্ষ থেকে বলা হয়, কনস্ট্রাকশন, ম্যানুফ্যাকচারিং, প্লান্টেশন ও এগ্রিকালচার সেক্টরে বৈধ করার ঘোষণা দিয়েছে মালয়েশিয়া সরকার। আগামী ১৬ নভেম্বর থেকে শুরু করে ২০২১ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত চলবে বৈধকরণ এ প্রক্রিয়া। নিয়োগকর্তা বা কোম্পানি সরাসরি এই প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে পারবে। কোম্পানি ছাড়া অন্য কারও মাধ্যমে বা নিজে নিজে ইমিগ্রেশনে গিয়েও বৈধ হওয়া যাবে না বলে জানায় হাইকমিশন।

ফেইসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসে আরও উল্লেখ করা হয়, শুধু নিয়োগকর্তা বা কোম্পানি অবৈধ কর্মীদের নামসহ rekalibrasi@imi.gov.my এই মেইলে সরাসরি ইমিগ্রেশনে আবেদন করতে পারবে।

বৈধকরণ প্রক্রিয়ার এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে সবাইকে বৈধ হওয়ার জন্য এবং কারও সঙ্গে আর্থিক লেনদেন করে প্রতারিত না হওয়ার জন্য সবাইকে পরামর্শ দেয়া হয় হাইকমিশনের পক্ষ থেকে।

উল্লেখ্য, বৈধতার খবর প্রকাশ হওয়ার পর থেকেই একশ্রেণির অসাধু ব্যক্তি বৈধ করে দেয়ার চমকপদ বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার পরিকল্পনায় লিপ্ত হয়েছে। মূলত এসব প্রতারকদের প্রতারণার ফাঁদে পা না দিতে কুয়ালালামপুরের বাংলাদেশ হাইকমিশনের তরফ থেকে এ ধরনের সচেতনতামূলক পোস্ট দেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *