প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পরেও চাকুরি ফেরত পায়নি রংপুরে রিকশাচালক মফিজ উদ্দিন

মি. জালাল / লিগ্যাল ভয়েস টোয়েন্টিফোর :

কারণ দর্শানোর নোটিশ ছাড়াই ১৯৯৫ সালে চাকুরিচ্যুত হন তৎকালীন আনসার ব্যাটালিয়নের নায়েক মফিজ উদ্দিন। চাকুরি ফেরত পেতে সকলের দুয়ারে গিয়ে ব্যর্থ হন তিনি। পরিশেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদন করলে গত ২১ এপ্রিল ২০১০ ইং তারিখে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে পরিচালক-২ মাহমুদুর রহমান স্বাক্ষরিত স্বারক নং- ২২.২২.১.০.০.৫৮.২০১০-৩০৫ (১১) বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিধি মোতাবেক পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণের নির্দেশ প্রদান করেন। এর পরেও চাকুরি ফেরত পাননি মফিজ উদ্দিন। রিকশাচালক মফিজ উদ্দিন রংপুর নগরীর ধর্মদাস বার আউলিয়া এলাকার শহীদ মুক্তিযোদ্ধা শহর উদ্দিন ব্যাপারীর ছেলে। ১৯৮৪ সালের এপ্রিল মাসে বাংলাদেশ আনসার ব্যাটালিয়ন এর সিপাহী পদে যোগদান করেন। কোন কারণ ছাড়াই ১৯৯৫ সালে তাকে চাকুরি হারাতে হয়।

চাকরিকালীন দক্ষতা, সততা ও সুনামের জন্য অল্প সময়ের মধ্যেই নায়েক হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেন মফিজ উদ্দিন। চাকুরি হারিয়ে দুই যুগেরও বেশি সময় ধরে রিকশা চালিয়ে সংসারের ঘানি টানছে মফিজ উদ্দিন। অর্থের অভাবে খেয়ে না খেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। সংসার জীবনে তার চারজন ছেলে। বড় ছেলে শামীম কিডনি রোগে অসুস্থ হয়ে ও মেজো ছেলে শুভ মাথায় আঘাত পেয়ে মৃত্যুবরণ করেন।

মফিজ উদ্দিন জানান, ১৯৯৫ সালের আগষ্ট মাসের ৮তারিখে তার কর্মস্থল উখিয়া টেকনাফের ধুয়াপাড়া ৩নং ক্যাম্প হতে বি. এন হেডকোয়ার্টার কালাপুর শ্রীমঙ্গল বদলি করা হয়। আদেশ মোতাবেক তিনি কালাপুরে যোগদান করতে গেলে সেখানকার এ্যাডজুট্যান্ট কোম্পানীর কমান্ডার আশরাফুল চৌধুরি পোস্ট খালি নেই বলে পূর্বের কর্মস্থলে ফেরত পাঠান। পূর্বের কর্মস্থলের এ্যাডজুট্যান্ট মফিজ উদ্দিনকে ১ মাস পর যোগাযোগ করতে বলেন। এক মাস পর মফিজ উদ্দিন যথারীতি নিয়মে দেখা করতে গেলে ব্যাটালিয়ন কমান্ডার চাকরি নাই বলে কর্মস্থলে যোগদান করতে দেয়নি। অভিযোগ করে মফিজ উদ্দিন বলেন, বিনা কারণে চাকুরিচ্যুত হওযার পর বহুবার উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করেও কোন প্রতিকার পায়নি। নিরুপায় হয়ে প্রধানমন্ত্রী কাছে আবেদন করি। পরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাত করি। প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাস প্রদান করেন ও তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পরিচালক-২ মাহমুদুর রহমানকে নির্দেশনা দেন। এর পরেও আমি চাকুরি ফেরত পায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *