নগরীতে বালু উত্তোলন বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন ও সমাবেশ

জালাল উদ্দীন /

মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের প্রজ্ঞাপণ অমান্য করে রংপুর মহানগরীর ১৩নং ওয়ার্ডের হোলারপুকুর এলাকায় ঘাঘট নদী থেকে নিয়মিতভাবে বালু উত্তোলন বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে এলাকাবাসি।
এলাকাবাসির অভিযোগ হোলারপুকুর এলাকার মৃত মনছুর আলীর ছেলে সাবেরুল ইসলাম ৪বছর ধরে অবৈধভাবে ঘাঘট নদী থেকে বালু উত্তোলন করে আসছেন। এতে করে এলাকার রাস্তাঘাটসহ ফসলি জমি ভেঙে যাচ্ছে। ভাঙনের কবলে পড়ছে হাজার হেক্টরের কৃষিজমি। এলাকাবাসি বালু উত্তোলনকালে বাঁশ দিয়ে সড়ক বন্ধ করে রাখে। কিন্তু বাঁশের খুঁটি সরিয়ে ফেলে বালু উত্তোলন অব্যাহত রাখেন সাবেরুল। এছাড়াও সড়কে অব্যাহত বালুবাহী ট্রাক চলাচলে কারণে এলাকার প্রধান সড়কটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এলাকার ভুক্তভোগিরা অভিযোগ করে বলেন, নিয়মিত বালু উত্তোলন বন্ধে রসিক মেয়র, রংপুর জেলা প্রশাসক, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে বিচার প্রার্থী হয়ে দরখাস্ত করা হয়েছে। কিন্তু দীর্ঘদিন অতিবাহিত হওয়ার পরে জেলা প্রশাসন কিংবা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে কোন প্রকার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। বরং বালুখেঁকো সাবেরুল গং তার গুন্ডাপান্ডা লেলিয়ে দিয়ে এলাকার অসহায় মানুষদের জিম্মি করে বালু উত্তোলন অব্যাহত রেখেছেন।
সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফজলে এলাহি ফুলু বলেন, ইতোপূর্বে স্থানীয়রা বালু উত্তোলনের বিষয়টি জানিয়েছেন। সম্প্রতি ওই স্থানে বালুবাহী ট্রাকের নিচে পড়ে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও নগরীর নজিরের হাটে বালুভর্তি ট্রাকের নিচে পড়ে এক অবসর প্রাপ্ত পুলিশ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ঘাঘট নদীর সবগুলো বালুর পয়েন্ট বন্ধ করা উচিৎ।
মানববন্ধন ও সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, হোলারপুকুর এলাকার আব্দুস সামাদ, বড়বাড়ি এলাকার মোখলেছ মিয়া, ব্যবসায়ী ইসলাম, মমিনুল ইসলাম, আঞ্জু বেগম লাভলি বেগম, আনোয়ার হোসেন, সার ব্যবসায়ী ইকবাল হোসেন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *