জিডিপিতে পুঁজিবাজারের অবদান বাড়ানোর সুযোগ রয়েছে

বাংলাদেশের জিডিপির আকার প্রায় ২৭ হাজার কোটি ডলার, যেখানে পুঁজিবাজারের বাজার মূলধন ৫ হাজার কোটি ডলার। জিডিপি ও বাজার মূলধনের অনুপাত মাত্র ১৮ শতাংশ, বিভিন্ন উন্নত দেশে যা ১০০ শতাংশের বেশি। একটি দ্রুত উন্নয়নশীল দেশের জিডিপিতে পুঁজিবাজারের অবদান কমপক্ষে ৪০ শতাংশ হওয়া প্রয়োজন। বাংলাদেশের জিডিপিতেও পুঁজিবাজারের অবদান বৃদ্ধির অনেক সুযোগ রয়েছে।

গতকাল ইনডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ (আইইউবি) আয়োজিত ‘বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের উন্নয়ন: সাম্প্রতিক অবস্থা ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা’ শীর্ষক দিনব্যাপী এক সেমিনারে মূল বক্তা হিসেবে এসব কথা বলেন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক কেএএম মাজেদুর রহমান।

আইইউবির উপাচার্য এম ওমর রহমানের সভাপতিত্বে সেমিনারে আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়টির উপ-উপাচার্য অধ্যাপক মিলান প্যাগন, স্কুল অব বিজনেসের ডিন অধ্যাপক মো. আমিনুল করিম, বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য রাশেদ চৌধুরী প্রমুখ।

সেমিনারে মাজেদুর রহমান বলেন, গত পাঁচ বছরে পুঁজিবাজারে অনেক ইতিবাচক পরিবর্তন হয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সঙ্গে কৌশলগত বিনিয়োগকারী হিসেবে যুক্ত হয়েছে চীনের শীর্ষস্থানীয় দুই স্টক এক্সচেঞ্জ শেনঝেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জ। তারা বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় ডিএসইর অগ্রগতির জন্য বড় ধরনের সুযোগ তৈরি হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *